খুনিদেরকে এরশাদ রাজনীতি করার সুযোগ দিয়েছিলেন: নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, রাজনীতিকে কলুষিত করেছে, সমাজকে ধ্বংস করেছে, শিক্ষাজীবনকে বিঘ্নিত করেছে, কোন কিছু বাদ দেয় নি। ব্যবসা-বাণিজ্য, অর্থ, স্বাধীনতা বিরোধীদের হাতে তুলে দিয়েছে। যারা প্রতিনিয়ত বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে। বাংলাদেশকে গোল্ডেন ট্রাইএঙ্গেল বানানোর চেষ্টা করা হয়েছে।

রবিবার (১৭ মার্চ) দিনাজপুর প্রেস ক্লাবের এম আব্দুর রহিম মিলনায়তনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, যুবসমাজের হাতে মাদক ও অস্ত্র তুলে দেয়া হয়েছে। বিঘ্নিত জাতি হিসেবে তৈরি করে দেয়া হয়েছে। খুনিদেরকে পূর্ণবাসন করা হয়েছে। যেই খুনিরা বলেছিল আমি বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছি সেই খুনিদেরকে জিয়াউর রহমান ফুলের মালা দিয়েছেন। সেই খুনিদেরকে এরশাদ রাজনীতি করার সুযোগ দিয়েছিলেন। খালেদা জিয়া সেই খুনিদেরকে পার্লামেন্টে- নিজামী ও মুজাহিদকে মন্ত্রী বানিয়েছেন।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধকে ধারণ করার ফলে শান্তির দেশ হিসেবে পরিচিত, জঙ্গিবাদ দমনে পৃথিবীতে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। যে জাতি একদিন দুর্যোগ, খরা কবলিত দেশ হিসেবে পরিচিত ছিল সে জাতি এখন উন্নয়নের রোল মডেল। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার করতে পেরেছি, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও রায় কার্যকর করেছি, পুরো বিশ্বে বাংলাদেশ এখন সম্মানিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, যুদ্ধের সময় পাকিস্তানি বাহিনী বঙ্গবন্ধুকে হত্যার জন্য ফাঁসির মঞ্চ তৈরি করেছিল এবং কবর পর্যন্ত প্রস্তুত করা হয়েছিল কিন্তু পারে নি। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, আমাকে হত্যা করতে পারবেন কিন্তু বাংলার স্বাধীনতাকে দাবিয়ে রাখতে পারবেন না। বাংলার মানুষের উপর তার যেমন বিশ্বাস ছিল তেমনি ভালোবেসে ছিলেন বাংলার মানুষদের। এমন একজন মানুষকে বাদ দিয়ে বাংলাদেশের উন্নয়ন, সোনার বাংলা গঠন কখনই সম্ভব হয়নি। ৭৫’র পরবর্তী সময়ে জিয়াউর রহমান, এরশাদ ও খালেদা জিয়া অনেক চেষ্টা করেছেন কিন্তু হয়নি।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *